৩ মাসেই মঙ্গলে পৌঁছানো সম্ভব


প্রকাশিত:
৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৪:১৫

আপডেট:
৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৫:১৭

ফাইল ফটো

মঙ্গলে যেতে পৃথিবী থেকে গড়ে ১৪ কোটি মাইল পাড়ি দিতে হবে। মনুষ্যবিহীন মহাকাশযানে মঙ্গলে যেতে বর্তমানে যে প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়, তাতে কমপক্ষে ৭ মাস লেগে যায়। মানুষ থাকলে লাগে ৯ মাস। যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রতিষ্ঠান সময় কমানোর জন্য পারমাণবিক ইঞ্জিন ব্যবহারের কৌশল প্রস্তাব করেছে। তারা বলছে, এ প্রযুক্তি ব্যবহারে ৩ মাসেই মঙ্গলে পৌঁছানো সম্ভব।

যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা ২০৩৫ সালের মধ্যে মঙ্গলে মানুষ পাঠাতে চায়। কিন্তু মঙ্গল এতটাই বৈরী যে সেখানকার পরিবেশ অ্যান্টার্কটিকার চেয়েও শীতল। আর এর বায়ুমণ্ডলে অক্সিজেন নেই বললেই চলে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এমন বৈরী পরিবেশে টিকে থাকা বড় একটি চ্যালেঞ্জ। পৃথিবী থেকে মঙ্গলে পৌঁছাতে যত বেশি সময় লাগবে, মহাকাশচারীদের জন্য এই চ্যালেঞ্জ ততই বাড়বে। এ কারণেই মঙ্গলযাত্রার সময় কমিয়ে আনার চেষ্টা করছেন বিজ্ঞানীরা।

যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলভিত্তিক প্রতিষ্ঠান আলট্রা সেফ নিউক্লিয়ার টেকনোলজিস (ইউএসএনসি-টেক) এই সমস্যার একটি সমাধান প্রস্তাব করেছে। তিনি বলছেন, মহাকাশযানে পারমাণবিক শক্তিচালিত ইঞ্জিন ব্যবহার করতে হবে। এতে পৃথিবী থেকে যাত্রা শুরু করে মাত্র ৩ মাসেই মঙ্গলে পৌঁছানো যাবে।

ইউএসএনসি-টেকের প্রকৌশল বিভাগের পরিচালক মাইকেল ইডেস বলেন, বর্তমানে যে রাসায়নিক ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়, তার চেয়ে পারমাণবিক শক্তিচালিত ইঞ্জিন বেশি শক্তিশালী হবে। এর কর্মদক্ষতাও দ্বিগুণ হবে। অর্থাৎ কম জ্বালানি খরচে মহাকাশযান আরও দ্রুতগতিতে তুলনামূলক বেশি দূরত্ব অতিক্রম করতে পারবে।



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top